আগামী ৩১ডিসেম্বর যশোরে আসছেন আওয়ামীলীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

0
96
আগামী ৩১ডিসেম্বর যশোরে আসছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
দৈনিক শিক্ষাবার্তা পত্র‌িকার সাংবাদিক হতে চান ?

আগামী ৩১ডিসেম্বর যশোরে আসছেন আওয়ামীলীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নিজস্ব প্রতিনিধি,দৈনিক শিক্ষাবার্তাঃ

বিজ্ঞাপন

আগামী ৩১ ডিসেম্বর যশোরে আসছেন আওয়ামীলীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।তিনি যশোর স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় ভাষণ দেবেন।

সর্বশেষ ২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী যশোরের অভয়নগরে জনসভায় বক্তব্য রাখেন। (এর আগে অবশ্য সেনানিবাসে এসেছিলেন।) সেই হিসেবে প্রায় চার বছর পর তিনি যশোর শামস-উল-হুদা স্টেডিয়ামে জনসভায় যশোরবাসীর সামনে বক্তব্য দেবেন। এই স্টেডিয়ামে ১৯৭৩ সালে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জনসভা করেছিলেন।

চলতি মাসের ৩১ তারিখে যশোরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার। তিনি বলেন,‘বুধবার রাত আটটায় গণভবনে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করেন। সেখানে মতবিনিময় থেকেই প্রধানমন্ত্রী যশোরে জনসভা করার সিদ্ধান্ত দেন। এসময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।’

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার আরো জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩১ ডিসেম্বর যশোর স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য রাখবেন। জনসভা সফল করতে ১৩ ডিসেম্বর যশোরে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হবে। যশোর পৌর কমিউনিটি সেন্টারে ওই প্রতিনিধি সভায় জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত থাকবেন। প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থল যশোর স্টেডিয়ামে অন্তত পাঁচ লাখ নেতাকর্মী ও সমর্থক উপস্থিত নিশ্চিত করতে ওই সভা থেকে করণীয় নির্ধারণ হবে।

শাহীন চাকলাদার বলেন, প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির (খুলনা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন। উপস্থিত থাকবেন নির্বাহী সদস্য এসএম কামাল হোসেন।

যশোর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ জানান, ওই জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী কয়েকটি কাজের উদ্বোধন করবেন। তিনি যশোর মেডিকেল কলেজ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো, ভৈরব খননের উদ্বোধন করতে পারেন। কয়েক দিনের মধ্যেই এগুলো চূড়ান্ত হবে। এবারের সফরে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সফরসঙ্গী হিসেবে দলের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ছাড়াও সিনিয়র নেতারা থাকবেন।

এদিকে, সর্বশেষ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ২০১৪ সালের ২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যশোরে আসেন। তখন তিনি অভয়নগরের শংকরপাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এক জনসভায় ভাষণ দেন। এর আগে ২০১২ সালের ২০ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শহরের বকুলতলাস্থ দেশের সবচেয়ে বড় বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল উদ্বোধন করেন। পরে যশোর ঈদগাহ মাঠে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। এসময় তিনি যশোরকে দেশের প্রথম ডিজিটাল জেলা হিসেবে ঘোষণা করেন। এসময় তিনি পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে যশোরে আসলে যশোর পৌরসভাকে সিটি কর্পোরেশনে উন্নীত করার প্রতিশ্রুতি দেন।

এর আগে ২০১০ সালের ২৭ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভৈরব নদ খননের ঘোষণা দেন। ঘোষণার এক মাসের মাথায় ২০১১ সালের ১৯ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ভৈরব খননের উদ্যোগ নিতে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেওয়া হয়। আর চলতি বছর এই খনন কাজের জন্য শেখ হাসিনা প্রায় ৬০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী যশোরের কপোতাক্ষ নদ খনন কাজ চলমান রয়েছে। নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে ‘শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক’র। যা আগামী ১০ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন। এছাড়া গত কয়েক বছরে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং যশোর মেডিকেল কলেজের অবকাঠামো উন্নয়নে কয়েকশ’ কোটি টাকা অনুমোদন দিয়েছেন।

আপনার মন্তব্য

Please enter your comment!
Please enter your name here