দৈনিক শিক্ষাবার্তা পত্র‌িকার সাংবাদিক হতে চান ?

মাগুরা জেলা প্রতিনিধি,দৈনিক শিক্ষাবার্তাঃ

মাগুরার জেলার মহম্মদপুর থানায় উদ্ধার হওয়া মস্তক বিহীনআমি আমার ছেলের মাথা চাই। ইমন হত্যার ১৪ দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ গ্রেফতার করতে পারিনি কোনো আসামিকে।এমনকি উদ্ধার করতে পারেনি তার মাথা।

বিজ্ঞাপন

এদিকে আসামি গ্রেফতার এবং মাথা উদ্ধার করতে না পারার কারণে ইমনের পরিবার এবং এলাকাবাসীর মাঝে ব্যাপক ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

ইমন মাগুরা সদর উপজেলার চাঁনপুর এলাকার ইসলাম মোল্যার ছেলে। তিনি মাগুরা টেকনিক্যাল কলেজে ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের প্রাক্তন ছাত্র ছিলেন।

এ ঘটনায় মহম্মদপুর থানায় ইমনের বাবা মো. ইসলাম মোল্যা বাদী হয়ে হুমায়ন এবং অনিক নামের দুইজনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

ইমনের বাবা ইসলাম মোল্যা অভিযোগ করে বলেন, ‘ইমনের দুই বন্ধু হুমায়ন এবং অনিক তাকে ডেকে নিয়ে নৃশংসভাবে হত্যার ১৪ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনো কোনো আসামি গ্রেফতার হয়নি এবং তার মাথাটাও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। আমি আমার ছেলের মাথা চাই। এ বিষয়ে আমি প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

উল্লেখ্য, গত ২ জুলাই সকালে মহম্মদপুর উপজেলার বাবুখালি ইউনিয়নের পাড়ুয়ারকুল গ্রামের আশ্রমের রাস্তার পাশে মাথাবিহীন এক যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

মাথাবিহীন লাশ দাফনের পর ইসলাম মোল্যা মহম্মদপুর থানায় এসে পরিচয় শনাক্ত করে।

মহম্মদপুর থানার ওসি মো. রবিউল হোসেন বলেন, মামলাটি মাগুরা গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মাগুরা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি মো. নাসির উদ্দিন বলেন, এখনো কোনো আসামি গ্রেফতার এবং তার মাথা উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। তবে আসামি গ্রেফতার এবং মাথা উদ্ধারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

আপনার মন্তব্য

Please enter your comment!
Please enter your name here