ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলা পরিষদের ভেতরে নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রকিবুর রহমান খান তার ব্যক্তিগত শটগান থেকে ৪ রাউন্ড ফাঁকা গুলি করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।ভাঙ্গায় ইউএনওর ফাঁকা গুলি

রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা পরিষদের ভেতরে এ ঘটনা ঘটে। এর পর রাতেই পুলিশ বাদী হয়ে ভাঙ্গা থানায় জিডি করে।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজী রবিউল ইসলাম।

তিনি বলেন, খবর পেয়েই আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে পুলিশ পাঠাই। এর পর রাতে পুলিশ বাদী হয়ে ভাঙ্গা থানায় জিডি করে।

জানা যায়, ফরিদপুর-৪ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মুজিবর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে রোববার সারা দিন মানববন্ধন ও সভাকে কেন্দ্রে করে উপজেলা প্রশাসন এবং পরিষদসহ আশপাশের এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি ছিল। এ পরিস্থিতিতে রাতে গুলির শব্দ শুনে থানা পুলিশসহ শহরবাসী উপজেলা পরিষদের সামনে ভিড় জমান। এতে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রকিবুর রহমান খান দৈনিক শিক্ষাবার্তা কে বলেন, আমি নতুন শটগান কিনেছি। সেটি পরীক্ষার জন্য ৫ রাউন্ড পর্যন্ত ফাঁকা গুলি ব্যবহার করতে পারব; কিন্তু আমি ৪ রাউন্ট ফাঁকা গুলি পুকুরে ছুড়েছি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আইনে দেয়া আছে– নতুন শটগান কিনলে টেস্ট করার জন্য ফাঁকা গুলি ছুড়তে পারি।

এ ঘটনায় ভাঙ্গা থানার ওসি মো. শফিকুর রহমান দৈনিক শিক্ষাবার্তা কে বলেন, রোববার সারা দিন ভাঙ্গায় ১৪৪ ধারা জারি থাকায় এমনিতে জনমনে আতঙ্ক ছিল। তার পর ৪ রাউন্ড ফাঁকা গুলির শব্দে জনসাধারণের মধ্যে আতঙ্ক আরো বেড়ে যায়।

তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গুলি ফোটাতে পারেন কিনা বা বৈধতা আছে কিনা আমার জানা নেই। আইন তার (ইউএনও) জানা আছে, যেহেতু তিনি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here