ভারতের কেরালা রাজ্যের কোঝিকোড়ের কারুপুর বিমানবন্দরে দুবাইফেরত এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিমান অবতরণের পর রানওয়েতে পিছলে গিয়ে দুই টুকরা হয়ে গেছে। শুক্রবার রাত পৌনে ৮টার এ ঘটনায় বিমানের দুই পাইলটসহ ১৫ জন নিহত এবং অন্তত ৫০ যাত্রী আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ১৫ জনের অবস্থা গুরুতর। কেরালায় রানওয়েতে যাত্রীবাহী বিমান ২ টুকরা, নিহত ১৫

এক বিবৃতিতে ডাইরেক্টরেট জেনারেল অব সিভিল অ্যাভিয়েশন (ডিজিসিএ) জানিয়েছে, প্রবল বৃষ্টির কারণে কেরালায় রানওয়েতে বিমানের চাকা পিছলে গিয়ে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে ২৪টি অ্যাম্বুলেন্স ও দমকলবাহিনী গিয়ে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে। খবর এনডিটিভির

সামাজিক মাধ্যমে পাওয়া ছবিতে দেখা গেছে, কেরালায় রানওয়েতে বিমানটি দু’টুকরো হয়ে যায় ও তার বাইরেও ছড়িয়ে পড়েছে। হতাহতের বিষয়ে এখনও বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। তবে বিমানটিতে আগুন লাগেনি। যাত্রীদের সবাইকে উদ্ধার ও আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

এয়ার ইন্ডিয়ার এক্স ১৩৪৪ বিমানটিতে ওই বিমানে ১৯১ জন ছিল। যাদের মধ্যে ১৭৪ জন যাত্রী, ১০ জন শিশু, দু’জন পাইলট ও পাঁচজন কেবিন ক্রু সদস্য। বিমানটি বন্দে ভারত প্রকল্পের অংশ। এটি করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বিদেশে আটকে পড়া ভারতীয়দের ফিরিয়ে আনার কাজে ব্যবহার করা হয়।

শুক্রবার দুপুরে দুবাই থেকে এয়ার ইন্ডিয়ার এক্সপ্রেস বিমানটি কেরালার কোঝিকোড়ের উদ্দেশে উড্ডয়ন করে। কোঝিকোড় বিমানবন্দর কেরালার অন্যতম শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক টার্মিনাল। এখানে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বিমান ওঠানামা করে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এক টুইটে বলেছেন, ‘কেরালার কোঝিকোড়ে এয়ার ইন্ডিয়ার এক্সপ্রেস বিমান দুর্ঘটনার খবরে আমি মর্মাহত। এনডিআরএফকে (ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স) দ্রুত ঘটনাস্থলে যেতে ও উদ্ধারকাজে সহায়তা করতে নির্দেশ দিয়েছি।’

আপনার মন্তব্য

আপনার মতামত দিন
আপনার নাম