কয়েন থেকে করোনাভাইরাস ছড়ানোর ঝুঁকি কতটা?

গোটা বিশ্বেই কয়েনের প্রচলন আছে। আমাদের দেশেও এর ব্যতিক্রম নয়। এক টাকা, দুই টাকা কিংবা পাঁচ টাকার কয়েনের ব্যবহার অহরহই হচ্ছে। অনেকেরই প্রশ্ন টাকার মাধ্যমে যদি করোনা ভাইরাস ছড়াতে পারে তাহলে কয়েন থেকে করোনাভাইরাস ছড়ানোর কি ঝুঁকি নেই?কয়েন থেকে করোনাভাইরাস ছড়ানোর ঝুঁকি কতটা?বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কয়েন থেকে করোনা ভাইরাস ছড়ায় কিনা তা প্রমাণিত না হলেও এই সম্ভাবনা একেবারে নেই এমন কথা বলা যায় না। অনেক ভাইরোলজিস্টের মতে, করোনা সংক্রমণ সাধারণত ভাইরাসের অনুপাতের উপর নির্ভর করে। মনে করা হয় কোন সারফেসে সংক্রমিত ব্যক্তির হাঁচি-কাশির ড্রপলেট থেকে আসা ভাইরাসের অনুপাত যদি ১০ টু দ্য পাওয়ার ১২ কিংবা ১০ টু দ্য পাওয়ার ১১, পার মিলি লিটার হয়; তাহলে তা সংক্রমণ ঘটাতে পারে। আর কয়েনের যদি সেই অনুপাত ভাইরাস পার্টিকেল এসে পড়ে এবং তা হাতের মাধ্যমে দেহে প্রবেশ করে সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির সংক্রমিত হতেই পারেন।

তারা বলছেন, কয়েন থেকে করোনাভাইরাস ছড়ানো নিয়ে আতঙ্কের কিছু নেই। কয়েনে ভাইরাস থেকে থাকলেও তা থেকে সংক্রমণ রোধ করাটা অনেকটাই সহজ। বিশেষজ্ঞদের মতে, সাবধানতাই সংক্রমণ এড়ানোর সবচেয়ে বড় উপায়। এজন্য বেশ কয়েকটি জিনিস মাথায় রাখতে হবে। যেমন – কয়েন ধরার পর হাত সাবান দিয়ে কচলে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। কোনভাবেই হাত চোখ, মুখ, নাক, কানে স্পর্শ করা চলবে না। এছাড়াও বাইরে থেকে আনা কয়েন বাড়িতে সাবান পানিতে ধুয়ে নিতে পারলে পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যাবে। তখন সংক্রমণের ভয় থাকবে না। সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন

আপনার মন্তব্য

আপনার মতামত দিন
আপনার নাম