ঢাবির ৬৭ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বা আজীবন ও ২২ জনকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ঢাবির ৬৭ শিক্ষার্থী আজীবন ও ২২ জনকে সাময়িক বহিষ্কার

ভর্তি পরীক্ষায় ডিজিটাল জালিয়াতি ও অবৈধ পন্থায় ভর্তির জন্য ৬৩ জন এবং অবৈধ অস্ত্র ও মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগে চার শিক্ষার্থীকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়। ঢাবির ৬৭ শিক্ষার্থীকে আজীবন ও ২২ জনকে সাময়িক বহিষ্কার করার বিষয়টি ঢাবি কতৃপক্ষ দৈনিক শিক্ষাবার্তা কে নিশ্চিত করেছেন।

আজীবন বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীদেরকে ইতোপূর্বে কারণ দর্শানো নোটিশ প্রদান করা হয়েছিল। সাত দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছিল। তারা জবাব ও দিয়েছিল। জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় শৃঙ্খলা পরিষদের সুপারিশক্রমে তাদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হলো।

এছাড়া সিন্ডিকেট সভায় ডিজিটাল জালিয়াতি ও অবৈধ পন্থায় ভর্তির অভিযোগে আরও ৯ জন এবং ছিনতাইয়ের অভিযোগে ১৩ শিক্ষার্থীকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। একই সঙ্গে তাদেরকে কেন স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না, এই মর্মে সাত কার্যদিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।