পরিবেশ, বন ও জলবায়ূ পরিবর্তনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেন,পৃথিবীর অনেক দেশ যা পারে না, সেটা বাংলাদেশ পারে। আমাদের দেশটা কৃষি প্রধান দেশ। আমাদের দেশের মাটি এতটাই উর্বর, যেখানে সেখানে বীজ ফেলে দিলেই গাছ হয়। এত উর্বর মাটি আর কোথাও নেই। সেই মাটিকে আমরা কাজে লাগাতে হবে।পৃথিবীর অনেক দেশ যা পারে না, সেটা বাংলাদেশ পারে: পরিবেশমন্ত্রী

এক সময় হাওর পারের মানুষ শুধুমাত্র লবণ আর কেরোসিন কিনতে হতো। এখন তাদের সব কিছু কিনতে হয়। আমরা অনেক জায়গা খালি ফেলে রেখে বিদেশ থেকে পণ্য আমদানী করি। কোন জায়গা খালি না রেখে কাজে লাগাত হবে। খালি জায়গাতে অন্তত নিজের এক বছরের প্রয়োজনীয় পেঁয়াজ উৎপাদন করি। আপনার উৎপাদিত পণ্যে আপনার পরিবার, গ্রাম, ইউনিয়ন চলবে। এভাবে একটু পরিশ্রম করলে আমরা অনেক এগিয়ে যেতে পারি।

সরকার কৃষকদের উৎসাহিত করতে প্রণোদনা দিচ্ছে। সে গুলো সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। করোনা পরিস্থিতিতেও আমাদের কৃষকরা ফসল উৎপাদন করে যাচ্ছেন। আমাদের মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি পাচ্ছে, রিজার্ভ বৃদ্ধি পাচ্ছে। পৃথিবীর মানুষ অবাক হয়ে দেখছে সারা পৃথিবীর মানুষ যা পারেনা, বাংলাদেশ সেটা করে দেখাতে পারে।

তিনি বুধবার মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলা পরিষদ হল রুমে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ অনুষ্টানে ভার্চুয়ালে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, জুড়ীর আয়োজনে রবি/’২০-২১ মৌসুমে প্রণোদনা কর্মসূচীর আওতায় সরিষা, সূর্যমূখী, গম, মুগ, ভূট্টা, চীনাবাদাম ও বোরো উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ করা হয়। অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- উপজেলা চেয়ারম্যান এম এ মোঈদ ফারুক, ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রনজিতা শর্মা, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. জসিম উদ্দিন, জায়ফরনগর ইউপি চেয়ারম্যান মাছুম রেজা, জুড়ী উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here