পোল্যান্ডের প্রাসাদে ২৮ টন গুপ্তধন
পোল্যান্ডের প্রাসাদে ২৮ টন গুপ্তধন! ছবি সংগৃহীত।
পোল্যান্ডের প্রাসাদে ২৮ টন গুপ্তধন
পোল্যান্ডের প্রাসাদে ২৮ টন গুপ্তধন! ছবি সংগৃহীত।

পোল্যান্ডের একটি জরাজীর্ণ প্রাসাদে ২৮ টন গুপ্তধন বা স্বর্ণ রয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে। জানা যায়, এগুলো দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের শেষ দিকে হিটলারের নাৎসি বাহিনী প্রাসাদের একটি গোপনস্থানে লুকিয়ে রেখেছিল। এ খবর জানার পর রীতিমতো রাতের ঘুম উড়েছে প্রাসাদ মালিকের। লুকিয়ে রাখা স্বর্ণগুলো ডাকাতদের হাত থেকে রক্ষা করতে প্রাসাদের বাইরে নিরাপত্তা বেড়া তৈরি করেছেন তিনি।

প্রাসাদটি দক্ষিণ-পশ্চিম পোল্যান্ডের রোজটোকা শহরে অবস্থিত। এই প্রাসাদটি বিশ্বযুদ্ধ শেষ হওয়ার আগে পর্যন্ত (আন্তর্জাতিক সীমান্ত পরিবর্তনের আগে) জার্মানির অর্ন্তভুক্ত ছিল। প্রায় ৭৫ বছর আগে একজন এসএস অফিসার তার লেখা ডায়েরিতে লুকানো সোনার বিষয়ে উল্লেখ করেছিলেন।

মাইকেলিস ছদ্মনামে এই কর্মকর্তা ১১টি স্থানের বিশদ বিবরণ লিখেছিলেন। সেখানে নাৎসিদের মালিকানাধীন স্বর্ণ ও নিদর্শনগুলি পুঁতে রাখা হয়েছিল। যে প্রাসাদে ২৮ টন স্বর্ণ রাখা হয়েছিল তা এককালে হচবার্গ পরিবারের আবাসস্থল ছিল। এটি পরে নাৎসিরা স্বর্ণ লুকিয়ে রাখার স্থান হিসাবে বেছে নিয়েছিল।

প্রাসাদটি ব্রাসলাউ নদীর তীরে অবস্থিত, যা এখন পোল্যাণ্ডের শহর রকলোর অর্ন্তভুক্ত। রোমান ফুরমণিয়াক নামের এক ব্যক্তি জানান, সোভিয়েত সেনাদের কাছ থেকে নাৎসিরা বিশ্বযুদ্ধের শেষের মাসগুলিতে ধন, ব্যাঙ্ক আমানত এবং মূল্যবান জিনিসপত্র আড়াল করার যে প্রচেষ্টা চালিয়েছিল ডায়েরিতে তার বিশদ বিবরণ রয়েছে। তিনি বলেন, ‍‌‌‌‌‌‌’আমি এটা বলছি না যে, এগুলো (সোনা) সেখানে অবশ্যই আছে।

তবে তথ্য অনুসারে এটি সেখানে পুঁতে রাখা হয়েছিল।

সূত্র: আন্তর্জাতিক ডেস্ক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here