ঘূর্ণিঝড় আম্পান ঘন্টায় ২০০ কি.মি বেগে আছড়ে পড়তে পারে বলে ধারণা করছে ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তর।আম্পান গতিবেগ বাড়িয়ে ভারতের কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, উপকলূবর্তী জেলাগুলির স্থলভাগে উপর দিয়ে ১২০ কিমি প্রতি ঘণ্টায় বইতে পারে গতিবেগ ১৯৫ কি.মি হতে পারে পূর্ব মেদিনীপুরে ও দুই ২৪ পরগনায়।

ঘণ্টায় ২০০ কি.মি বেগে আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড় আম্পান
প্রবল বেগে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় আম্পান। প্রতীকী ছবি

খুব দূরে নেই ঘূর্ণিঝড় আম্পান। ভারতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, সাইক্লোন থেকে আরো শক্তিশালী হয়ে সুপার সাইক্লোনে পরিণত হয়ে গিয়েছে আম্পান৷

সোমবার দুপুর পর্যন্ত আম্পানের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ২০০ কি.মি৷ বঙ্গোপসাগরে দিঘা থেকে ৯২০ কিমি দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থান করছে আম্পান ৷

ভারতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তর (আইএমডি) জানাচ্ছে, ঘূর্ণিঝড়টি আরো খানিকটা সময় নিয়ে উত্তরে সরবে৷ তারপর বাঁক নিয়ে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে দিক থেকে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে ঢুকে পড়বে ৷ ২০ মে বিকেলে পশ্চিমবঙ্গের দিঘা ও বাংলাদেশের উপকূলবর্তী হাতিয়া আইল্যান্ডে মধ্যে দিয়ে আছড়ে পড়বে৷ তখন এর সর্বোচ্চ গতিবেগ থাকতে পারে ১৮৫ কিমি প্রতি ঘণ্টা৷

প্রচণ্ড শক্তি বাড়িয়ে ধীরে বঙ্গোপসাগরের উপকূলবর্তী এলাকার দিকে এগোচ্ছে৷ বুধবারই সম্ভবত স্থলভাগে আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড় আম্পান৷ ভারতীয় হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস, ঘূর্ণিঝড়টি পূর্ব মেদিনীপুর, দক্ষিণ ও উত্তর ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি ও কলকাতার উপর দিয়ে বইবে৷ ২১ বছর আগে ১৯৯৯ সালে এরকমই একটি সুপার সাইক্লোন ওড়িশা ও গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের বিস্তীর্ণ অঞ্চল তছনছ করেছিল৷ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল সে বার৷

আম্পানের জন্য কেন্দ্রকে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন চলাচল সাময়িক ভাবে বন্ধ রাখার আবেদন জানিয়েছে ওড়িশা সরকার৷ তারা জানিয়েছে, উপকূলবর্তী এলাকায় আটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকদের নিরাপদ স্থানে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে তারা সরানোর ব্যবস্থা করছে ৷

আপনার মন্তব্য

আপনার মতামত দিন
আপনার নাম