করোনা আক্রান্ত বাড়লে আরও ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি। দৈনিক শিক্ষাবার্তা : ২২ জুন, ২০২০।

0
61

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকলে সরকার আরও ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেবে। পাশাপাশি মেডিকেল টেকনোলজিস্ট নিয়োগের কাজও চলমান রয়েছে। করোনা পরিস্থিতি আগামীতে যেরকম হবে সরকার সেভাবেই বুঝে শুনে পদক্ষেপ নেবে।

চীন থেকে আগত ১০ জন প্রতিনিধিকে বিদায় জানাতে সোমবার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর গিয়ে সেখানে ভিআইপি লাউঞ্জে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। খবর : ইউএনবি

আরও ২ হাজার চিকিৎসক
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক -ফাইল ছবি

তিনি বলেন, চীন করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। তাদের কাজে অগ্রগতিও অনেক। এই ভ্যাকসিন আবিষ্কার হলে সবার আগে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাংলাদেশকে পাঠাবে বলে চীন সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। চীনের আক্রান্ত সময়ে বাংলাদেশ যেভাবে পাশে ছিল চীন সরকার সেই উদারতার প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের জন্য সবার আগে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেবে।

প্রতিনিধি দলের বাংলাদেশ সফর নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, কোভিড-১৯ প্রতিরোধে বাংলাদেশের কাজে চীনা দল সন্তুষ্ট হয়েছে, তবে কভিড মোকাবিলায় আরও কিছু জায়গায় উন্নতি করার সুযোগ রয়েছে বলেও প্রতিনিধি দল সরকারকে জানিয়েছে। আমরাও সামনের দিনগুলোতে চিহ্নিত জায়গাগুলো নিয়ে আরও কাজ করবো।

কীট প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, চাহিদা অনুযায়ী পরিমানে কীট পাওয়া যাচ্ছে না। কারণ বর্তমান বিশ্বের সব দেশেই কীটের চাহিদা রয়েছে। তবে যা মজুদ আছে তাতে ঘাটতি হওয়ার কথা না। কোনো কারণে সংকট তৈরি হলেও তা খুব দ্রুতই মেটানোর ব্যবস্থা সরকারের হাতে নেয়া রয়েছে। কাজেই কীট নিয়ে এই মুহূর্তে উদ্বেগের কোনো কারণ নেই। তবে, করোনা এভাবে বাড়তে থাকলে আরও ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেবার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের।

তিনি বলেন, করোনায় যে হারে প্রতিদিন রোগী বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে মানুষ অধিক সচেতন না হলে সব হাসপাতাল করোনা রোগীতে পরিপূর্ণ হয়ে যাবে। এ কারণে করোনা মোকাবিলায় দেশের মানুষকে আরও বেশি স্বাস্থ্য সচেতন হতে হবে। পাশাপাশি কোরোনা মোকাবিলায় স্বাস্থ্যখাতে বাজেট আরও বাড়ানো প্রয়োজন বলেও স্বাস্থ্যমন্ত্রী তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং ভ্যাকসিন আবিষ্কার হলে তা সবার আগে বাংলাদেশ পাবে বলে নিশ্চিত করে বক্তব্য দেন।

ব্রিফিংকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, চীন থেকে আগত প্রতিনিধি, স্বাস্থ্য খাতের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here