বর্তমান সময়টা ভালো যাচ্ছে না ফাটাকেষ্ট খ্যাত তারকা মিঠুন চক্রবর্তীর। শারীরিক, পারিবারিক, রাজনৈতিক টানাপোড়েনে দিন কাটাচ্ছেন বলিউডের ‘ডিস্কো ড্যান্সার’। সর্বশেষ তৃণমূল ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দিয়ে সমালোচিত হয়েছেন৷মিঠুন চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে মামলা

সমালোচনার জবাবে অবশ্য বলেছিলেন, বাংলার ভালর জন্যই রাজনৈতিক দল বদলেছেন। প্রচারণাতেও সামিল ছিলেন গেরুয়া দলের হয়ে৷ কিন্তু কংগ্রেসের ভরাডুবি হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে৷

সেই রেশ কাটতে না কাটতেই এবার মামলা খেয়ে বসলেন বাঙালি এই বলিউড অভিনেতা।

৬ মে, বৃহস্পতিবার তার বিরুদ্ধে বাংলার ভোট পরবর্তী হিংসায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ আনল তৃণমূল। মিঠুনের বিরুদ্ধে একটি এফআইআরও দায়ের করা হয়েছে মানিকতলা থানায়। তাতে অভিনেতার বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রচারে উস্কানিমূলক মন্তব্যের অভিযোগ এনেছে উত্তর কলকাতা যুব তৃণমূল।

একই অভিযোগ আনা হয়েছে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধেও।

বিজেপি-র ব্রিগেড সমাবেশে, আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন মিঠুন চক্রবর্তী। সেখানেই বক্তৃতা করতে গিয়ে নিজের ছবির জনপ্রিয় সংলাপ আউড়েছিলেন মিঠুন। এফআইআরে বলা হয়েছে, মিঠুনের ওই সব সংলাপেই উত্তেজনা ছড়িয়েছে রাজ্যে।

একজন তারকা হিসাবে প্রকাশ্য মঞ্চে এই ধরনের সংলাপের ব্যবহার করে মিঠুন দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজ করেছেন বলেও অভিযোগ করা হয়েছে ওই এফআইআরে।

নির্বাচনী প্রচারের ময়দানে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও ‘জায়গায় জায়গায় শীতলখুচি’ হবে বলে মন্তব্য করেছিলেন। তার বিরুদ্ধেও উস্কানিমূলক মন্তব্য করার অভিযোগ আনা হয়েছে তৃণমূলের তরফে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here