স্টাফ রিপোর্টার,দৈনিক শিক্ষাবার্তাঃ

ধর্ষণ এখন এক আতঙ্ক‌ের নাম। রাজধানীর রাজধানীর ওয়ারীতে ধর্ষণের পর শিক্ষার্থী হত্যা, আটক ৬।ওয়ারীতে সাত বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

ওয়ারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুর রহমান জানান, শিশুটিকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

শিশুটির নাম সামিয়া আক্তার (৭)। সে সিলভারডেল স্কুলের শিক্ষার্থী। তাকে ধর্ষণের পর গলায় রশি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সোহেল মাহমুদ। শনিবার (৬ জুলাই) দুপুর ১টা ৫৪ মিনিটে শিক্ষার্থীর মরদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করার পর এ কথা জানান তিনি।

শুক্রবার বেশ কয়েকঘণ্টা ধরে নিখোঁজ থাকায় বাবা-মা ও প্রতিবেশীরা খোঁজাখুঁজির পর রাত পৌনে আটটার দিকে নির্মাণাধীন ওই ভবনের একটি কক্ষে শিশুটির মরদেহ খুঁজে পান। আজ সকালে শিশুটির বাবা অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে ওয়ারী থানায় মামলা করেছেন। এ ঘটনায় ওই ভবনের নিরাপত্তারক্ষীসহ সন্দেহভাজন ছয় জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলেও জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

সোহেল মাহমুদ বলেন, শিশুটিকে ধর্ষণের পর তার গলায় রশি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।
এক প্রশ্নের জবাবে সোহেল মাহমুদ বলেন, শিশুটির মুখে কামড়ের দাগ পাওয়া গেছে। এছাড়া তার ‘হাই ভ্যাজাইনাল সয়াব’ পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।