সরকারি চাকরিজীবীরা বিশাল সুখবর পেলো সরকারের কাছ থেকে। এখন থেকে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা চাকরি থেকে অবসরের পর বা অবসরোত্তর ছুটি (পিআরএল) শুরু হওয়ার পর অন্য পেশায় যোগ দেয়া কিংবা বিদেশযাত্রার ক্ষেত্রে সরকারের অনুমতি নেয়ার প্রয়োজন হবে না। ‘সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮’ এর এ বিধানের কথা স্মরণ করে দিয়ে বুধবার পরিপত্র জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।সরকারি চাকরিজীবীরা পেলো বিশাল সুখবর

এতে বলা হয়, সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, চাকরি থেকে অবসর নেয়া বা অবসরোত্তর ছুটি (পিআরএল) শুরুর পরও কোন কোন কর্মচারী বৈদেশিক বা বেসরকারি বা প্রকল্পে চাকরি নেয়া, অন্য কোনো পেশা বা ব্যবসা পরিচালনা এবং বিদেশযাত্রার জন্য অনুমতি বা পাসপোর্ট নবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আবেদন করে থাকেন।

পুনরাবৃত্তি রোধের বিষয়টি উল্লেখ করে বলা হয়, ‘সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮’ এর ৫২ ধারার বিধান মতে অবসর নেয়ার পর সংশ্লিষ্ট কর্মচারী সরকার বা কোন নির্দিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রণমুক্ত থাকেন বিধায় এমন আবেদন নিষ্পত্তিতে শ্রম ও সময়ের অপচয় ঘটছে।

‘আইনের ৫২ ধারায় বলা হয়েছে- চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার পর চুক্তিভিত্তিক কর্মরত থাকা ব্যতীত কোনও ব্যক্তির বৈদেশিক বা বেসরকারি চাকরি বা কোন প্রকল্পে চাকরি নেয়া, অন্যকোন পেশা, ব্যবসা পরিচালনা এবং বিদেশযাত্রার জন্য সরকার বা কর্তৃপক্ষের অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন হবে না। তবে শর্ত থাকে যে, সরকার বা উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ কোনো বিশেষ ক্ষেত্রে, অনুরূপ ভিন্ন চাকরি বা পেশা গ্রহণ, ব্যবসা পরিচালনা, বিদেশযাত্রার ক্ষেত্রে অনুমতি নেয়া বাধ্যবাধকতা আরোপ করতে পারবে।’

পরিপত্রে আরও বলা হয়, এমতাবস্থায় সরকারি চাকরিজীবিরা চাকরি থেকে অবসর নেয়ার পর অবসরত্তোর ছুটি শুরুর দিন থেকে সরকারি চাকরি আইন অনুযায়ী কোনো ব্যক্তি চুক্তিভিত্তিক কর্মরত থাকা ছাড়া, বৈদেশিক বা বেসরকারি চাকরি বা কোন প্রকল্পে চাকরি নেওয়া, অন্য কোন পেশা গ্রহণ বা ব্যবসা পরিচালনা এবং বিদেশযাত্রা বা সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কার্যক্রম (যেমন, নতুন পাসপোর্ট ও পাসপোর্ট নবায়ন ইত্যাদির) ক্ষেত্রে সরকার বা কর্তৃপক্ষের অনুমতির প্রয়োজন হবে না।

বিধান অনুসরণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয়/বিভাগ/অধিদপ্তর/পরিদপ্তর ও সংস্থাকে বুধবার পরিপত্র জারি করে অনুরোধ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here